যে কারনে ভেঙ্গে গেলো নায়িকা শাবনুরের সংসার

Read Time:4 Minute, 39 Second

স্বামীকে তালাক দিলেন শাবনূর, বাংলা চল’চ্চিত্রের এক সময়’কার তুমুল জন’প্রিয় নায়িকা শাবনূর। এরই মধ্যে স্বামী অনিকে’র সাথে কেটে যায় প্রায় ৮ বছরের যৌথ জীবন। বনি’বনা হচ্ছে না-এমন অভিযোগ দেখিয়ে গত ২৬ জানুয়ারি স্বামী’কে তালাক দিয়েছেন ঢালিউ’ডের নাম্বার ওয়ান চিত্র’নায়িকা শাবনুর। তবে জানা গেছে আরোও অনেক কারন ছিল ডিভোর্স দেওয়ার আগে।

শারমীন নাহিদ নূপুর ওরফে “শাবনূর” স্বাক্ষরি’ত নোটিশ’টি তার অ্যাড’ভোকেট কাওসার আহমেদের মাধ্য’মে স্বামী’কে পাঠিয়েছেন। নোটি’শে অনিকের সঙ্গে বনি’বনা হয় না বলে উল্লেখ করা হয়েছে তালাক নামায়।

শাবনূর অনিক কাউ’কে না পাওয়া গেলেও ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন তালা’কের নোটিশ এবং হলফ’নামা প্রস্তুত’কারী অ্যাডভোকেট কাওসার আহমেদ। তিনি বলেন গত ২৬ জানুয়ারি অনিকের সঙ্গে বিবাহ বন্ধন দু-ভাগ করেছেন শাবনূর। ৪ ফেব্রুয়ারি অনি’কের উত্তরা এবং গাজী’পুরের বাসার ঠিকানায় সেই নোটিশ পাঠায় শাবনুরের উকিল।

উত্তরার বাসা থেকে নোটিশ’টি ফেরত এলেও গাজীপুরের ঠিকানায় পাঠানো নোটিশটি এখনো ফেরত আসেনি বলে জানান এডভোকেট। যদি নোটিশ’টি অনিক গ্রহণ না করে থাকত তাহলে এর মধ্যেই ফেরত আসত। তবে আইন গত’ভাবে তাঁদের এই তালাক কার্য’কর হবে ৯০ দিন পর। নোটিশে শাবনূর বলেছেন আমার স্বামী অনিক মাহমুদ হৃদয় সন্তান এবং আমার যথা’যথ যত্ন ও রক্ষণা’ বেক্ষণ করেন না। সে একজন মাদক সেবন কারী ব্যক্তি।

অনেক’বার মধ্য’রাতে মদ্যপ অবস্থায় বাসায় এসে আমার ওপর শারীরিক ও মানসিক নির্যা’তন চালিয়ে’ছে। আমাদের ছেলের জন্মে’র পর থেকে সে আমার কাছ থেকে দূরে সরে থাকত এবং অন্য একটি মেয়ের সঙ্গে সম্পর্ক গড়ে আলাদা বসবাস করছে বলে জানায় শাবনুর।

এক’জন মুসলিম স্ত্রীর সঙ্গে তার স্বামী যে ব্যবহার করেন অনিক সেটা করছে’ন না, উল্টো নানা’ভাবে আমাকে নির্যা’তন করে থাকতো। এসব কারণে আমার জীবনে অনেক অশান্তিতে ভরে গিয়েছিল।

অনেকবার চেষ্টা করেও এসব থেকে তাকে ফেরাতে পারি’নি। বার’বার আমার সন্তান এবং আমার ওপর নানা ভাবে নির্যা’তন আরো বাড়তে থাকে সে। এইসব কারণ গুলো’র জন্য মনে হয় তার সঙ্গে আমার আর বস’বাস করা সম্ভব না এবং আমি কখনো তার সাথে সুখী হতে পারবো না।

এসব কারনে নি’জের উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ এবং সুন্দর জীবনের জন্য তার সঙ্গে সব সম্পর্ক ছিন্ন করতে চাই। মুস’লিম আইন অনুযায়ী এবং শরীয়ত মোতা’বেক আমি তাকে তালা’ক দিতে চাই। আজ থেকে সে আমার বৈধ “স্বামী” নয়, আমিও তার বৈধ “স্ত্রী” নই।

গত ২০১১ সালের ৬ ডিসেম্বর অনিক মাহ’মুদ হৃদয়ের সঙ্গে আংটি বদল করেন শাবনূর। এর’পর ২০১২ সালের ২৮ ডিসেম্বর বিয়ে করেন তারা। ২০১৩ সালের ২৯ ডিসেম্বর আই’জান নিহান নামে এক পুত্র সন্তানের মা হন “শাবনূর”। পুত্র’কে নিয়ে তিনি এখন অস্ট্রে’লিয়ায় বস’বাস করছেন।

৭বছর আগে অনিক মাহমুদ হৃদয়ের সঙ্গে বিয়ে’র পিঁড়ি’তে বসেছিলেন বাংলা চল’চ্চিত্রের এক সময়’কার তুমুল জনপ্রিয় নায়িকা শাবনূর। বিয়ের পরের বছরই এ দম্পতি’র ঘর আলো’কিত করে আসে এক পুত্র’সন্তান। কিন্তু চলতি বছরের জানুয়ারি’তে ভেঙে গেল সেই সংসার!

0 0
Happy
Happy
0
Sad
Sad
0
Excited
Excited
0
Sleppy
Sleppy
0
Angry
Angry
0
Surprise
Surprise
0

Next Post

বিশ্ববাসী দেখলো লিটনের ভয়ংকর রুপ

একের পর এক রেকর্ড ভেঙ্গে দিলেন তামিম-লিটনের জুটি,সতিই অসাধারণ। জিম্বাবুয় এবং সিলেট স্টেডি’য়াম তাদের দিয়েছে দুই হাত ভরে। লিটনের রেকর্ড গড়া ইনিংসে বিদায়ের পর ওপে’নিংয়েতামিমের সাথে লিটনের ২৯২ রানের জুটি’টি জায়গা করে নেয় বিশ্ব’রেকর্ডের তালিকা’তে, টসে হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে ধীর গতিতে ব্যাটিং শুরু করেন তামিম-লিটন দুজনে’ই। বল বাড়ার সাথে সাথে […]
Liton_Das

আরও পড়ুন